হোমপেজ অপরাধ কালিগঞ্জে সরকারি চাল কেলেঙ্কারি: অভিযোগের তীর আওয়ামী লীগ নেতার দিকে

কালিগঞ্জে সরকারি চাল কেলেঙ্কারি: অভিযোগের তীর আওয়ামী লীগ নেতার দিকে

110
0

সিলেটের জকিগঞ্জ উপজেলার কালিগঞ্জে সরকারি চাল কেলেঙ্কারি ও হরিলুটের ঘটনায় ৩ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। এ কমিটিকে আগামী দুই কার্য দিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়েছে। প্রতিবেদন পাওয়ার পর পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। 

সরকারি চাল আত্মসাৎ ও লুটপাটের বিষয়ে জানতে চাইলে সিলেটের জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক (ডিসি ফুড) মনোজ কান্তি দাস চৌধুরী এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, জকিগঞ্জের ঘটনায় ৩ জন প্রথম শ্রেণীর কর্মকর্তার সমন্বয়ে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। এই কমিটিকে ২ কার্য দিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়েছে। প্রতিবেদন পাওয়ার পর পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। তদন্ত কমিটিতে রয়েছেন কানাইঘাট উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক কর্মকর্তা আব্দুর রউফ, দক্ষিণ সুরমা উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক কর্মকর্তা আব্দুল আউয়াল, উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক কর্মকর্তা কারিগরী অঞ্জন কুমার দাস।এর আগে রবিবার রাতে উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক কর্মকর্তা রুমানা আফরোজ আটক ৮ জনের বিরুদ্ধে বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা দায়ের করেন জকিগঞ্জ থানায়। সোমবার তাদেরকে আদালত জেলহাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন।

তারা হলেন, সিলেট নগরীর কোতোয়ালী মডেল থানার নবাব রোডের সিরাজ মিয়ার ছেলে শফিকুল ইসলাম (৪২), জকিগঞ্জের খাসেরা গ্রামের মৃত ফয়জুর রহমানের ছেলে কালিগঞ্জ বাজারের ডিলার জয়নাল আহমদ (২৭), উত্তর আইয়র (সাবেক মনতলা) গ্রামের আব্দুস সালাম ওরফে পাখী মিয়ার ছেলে কসকনকপুর গ্রামের ডিলার আব্দুল মুকিত (৩১), বারঠাকুরী ইউনিয়নের আমলশীদ গ্রামের সাথির আলীর ছেলে ডিলার আব্দুল আজিজ (৫৬), কসকনকপুর গ্রামের আছদ্দর আলীর ছেলে ট্রাক চালক কামরুল ইসলাম (২৭), বারগাত্তা গ্রামের আব্দুল কুদ্দুসের ছেলে ও ট্রাকহেলপার সইফ উদ্দিন (৩০), নগরকান্দি গ্রামের আব্দুল ওয়াহিদের ছেলে দেলোয়ার হোসেন (২৯) ও দেওয়ানেরচক গ্রামের মৃত আব্দুল গফুরের ছেলে বিপ্লব আহমদ (২৮)।

মামলার বাদী উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক কর্মকর্তা রুমানা আফরোজ মামলার এজাহারে উল্লেখ করেন, ডিলারদের বিক্রয়কেন্দ্রে চাল পৌঁছে দেয়ার কথা থাকলেও শফিকুল ইসলাম ও আটক অন্যান্য ডিলারসহ অপরাপর আসামিদের পরস্পর যোগসাজসে কালিগঞ্জ বাজারের চাল ব্যবসায়ী আব্দুল মুকিতের চালের আড়তে সেলিম সওদাগরের নিয়ন্ত্রণাধীন জয়নাল আহমদের চালের গুদামে অবৈধভাবে চাল মজুদ করেছিলেন। 

আটক আসামিদেরকে জিজ্ঞাসাবাদে চালানে বর্ণিত ৬৮৪ বস্তা চালের মধ্যে অবশিষ্ট ৩৩৮ বস্তা চালের ব্যাপারে কোন সদুত্তর দিতে পারেনি। তারা একেকজন একেক কথা বলছেন। আসামিরা খাদ্য অধিদপ্তরের চাল সিন্ডিকেট করে অবৈধভাবে বিক্রিয়ের জন্য ট্রাকে করে কালিগঞ্জে এনে মজুদ করেছিলো।

উল্লেখ্য, সেলিম সওদাগর জকিগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক। 

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে