হোমপেজ সম্পাদকীয় সাংবাদিকদের আর্থিক সহযোগীতা করতে হবে – বনেক

সাংবাদিকদের আর্থিক সহযোগীতা করতে হবে – বনেক

124
0

বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাস মহামারী রূপ ধারণ করায় বাংলাদেশে এ ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে সতর্কতা ও সচেতনমূলক পদক্ষেপের অংশ হিসেবে সরকারের পাশপাশি কাছ করছেন দেশের সাংবাদিক সমাজ । ইতিমধ্যে দেশের সকল সরকারি-বেসরকারি অফিস-আদালত, ব্যক্তি মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান, গণপরিবহন চলাচল বন্ধ রয়েছে । এরই মাঝে কাজ করছেন সাংবাদিকগণ যারা দেশবাসীকে বিশ্বাসের পরিচয় দিয়ে যাচ্ছেন । করোনা প্রেক্ষাপটে সাধারণ মানুষের সমস্যার কথা তুলে ধরেছেন সাংবাদিকরা। শহরের মধ্যবিত্ত থেকে শুরু করে কৃষক, শ্রমিক, মেহনতি মানুষের গৃহবন্দির কথা, সামাজিক ও রাজনৈতিক পরিস্থিতির কথা, তাদেও জীবন- জীবিকার কথা । জীবনের ঝুঁকি নিয়ে নির্মম সত্যকে প্রকাশ করতে ভীত হচ্ছেন না তারা । এহেন পরিস্থিতিতে সাংবাদিকদের ও তাদের পরিবার- পরিজনদের রুটি রুজির কথা কেও কি ভেবে দেখেছেন । করোনা পরিস্থিতিতে গরীব মধ্যবিত্তদের মতো তাদেরও আয়ের পথ বন্ধ রয়েছে । তাদেরকে আর্থিক সহযোগীতা দেয়ার কথাও আমাদের নীতি নির্ধারকদের ভাবতে হবে বলে মনে করি । করোনাভাইরাসের এই দুর্যোগে গণমাধ্যমে নিয়োজিত কর্মী ও সাংবাদিকদের নিরাপত্তা ও বিশেষ প্রণোদনা দিতে সরকারের প্রতি লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়েছে। গত মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মো. মনিরুজ্জামান লিংকন ইমেইল যোগে তথ্য সচিব, অর্থ সচিব, করোনা প্রতিরোধ সেল ও স্বাস্থ্য সচিব বরাবর এ নোটিশ পাঠান। এতে বলা হয়, করোনাভাইরাস বিশ্বে মহামারি আকার ধারণ করেছে। যার ব্যাপকতা দেশকে আক্রান্ত করেছে। করোনাভাইরাসের সুনির্দিষ্ট কোনো ওষুধ পর্যন্ত আবিষ্কার হয়নি। সামাজিক সচেতনতাই এই ভাইরাস নিবারণের একমাত্র স্বীকৃত পন্থা হিসেবে পরিগণিত হয়ে আসছে। এই সামাজিক সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য সাংবাদিকরা সব থেকে বেশি অবদান রাখছেন। এই ক্রান্তিকালে তারা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সংবাদ সংগ্রহ করে মানুষকে অবহিত করছেন। সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন। তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত ও তাদেরকেও আর্থিকভাবে সহযোগীতা করা রাষ্ট্রের জন্য একান্ত আবশ্যক হয়ে দাঁড়িয়েছে। সাংবাদিকদের নিরাপত্তা সরঞ্জমাদি প্রদান ও তাদের জন্য বিশেষ প্রণোদনা দেওয়া অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলে নোটিশে উল্লেখ করা হয়। আগামী সাত দিনের মধ্যে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুরোধ করা হয়েছে এতে। অন্যথায় আইনের আশ্রয় নেওয়া হবে বলে জানান এ আইনজীবী। এই আইনজীবীর বক্তব্যকে আমরা সমর্থন করি । তিনি অত্যন্ত যুক্তিসংগত তথা বলেছেন । এদাবী আমাদেরও । সরকারের প্রতি বাস্তবায়নের দাবী জানাচ্ছি । পরিবেশে বলবো আমরা সাংবাদিকরাও মানুষ, আমরা মৃত্যুভয়ে ভীত নই । সৎ পথে থেকে সততার সঙ্গে জীবনযাপন করছি । অঢেল ধন-দৌলতের প্রয়োজন নেই, তবে ন্যূনতম সম্মানীর ব্যবস্থা করা হোক আমাদের জন্য ।
লেখক : খায়রুল আলম রফিক, সভাপতি, বাংলাদেশ অনলাইন সংবাদপত্র সম্পাদক পরিষদ (বনেক) বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স ইউনিটি, সম্পাদক ২৪ ঘণ্টা নিউজ.কম ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে