হোমপেজ রাজনীতি নেত্রী যখন জেলে আমরা রাজপথে মার খেয়েছি, কাকুতি-মিনতি করিনি: নাসিম

নেত্রী যখন জেলে আমরা রাজপথে মার খেয়েছি, কাকুতি-মিনতি করিনি: নাসিম

307
0

খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য সরকারের কাছে বিএনপি নেতাদের মুক্তি দাবির কড়া সমালোচনা করেছেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও ১৪ দলের সমন্বয়ক মোহাম্মদ নাসিম। তিনি বলেছেন, নেত্রী যখন জেলে ছিলেন, আমরা রাজপথে আন্দোলন সংগ্রাম করেছি, মার খেয়েছি; তবুও তাদের মতো কাকুতি মিনতি করিনি।

মঙ্গলবার রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের মাওলানা মোহাম্মদ আকরাম খাঁ হলে জাতীয় স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদ (স্বাশিপ) আয়োজিত ‘মুজিব মানে বাংলাদেশ’ শীর্ষক আলোচনাসভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন।

নাসিম বলেন, বিএনপিই একমাত্র দল যারা নেত্রীর মুক্তির জন্য কাকুতি মিনতি করে।

বিএনপির নেতাদের সমালোচনা করে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, দলটির যে দায়িত্ববোধ নেই, নেতারা যে হীনমন্যতায় ভুগছেন, দেউলিয়া হয়ে গেছেন— তার প্রমাণ দলটির মহাসচিবের বক্তব্য। যেখানে শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানাবেন যে, ‘আপনারা দায়িত্ব নিয়ে কাজ করেছেন। প্রোগ্রাম ছোট করেছেন’, তা না বলে বলেছেন— সরকার নাকি করোনাকে চেপে রাখছে। তাদের দায়িত্ববোধ নাই, এ জন্যই তাদের দলের নেত্রীর মুক্তির জন্য কাকুতি-মিনতি করতে হয়।

‘বিএনপির দায়িত্ববোধ বলে কোনো কিছু নেই, যে কোনো বিষয়ে বিএনপি নেতিবাচক ভূমিকা রাখে। এ জন্য তাদের বর্তমান পরিস্থিতি এ রকম। বিএনপির ভুলের রাজনীতির কারণেই তাদের নেতার মুক্তির জন্য সরকারের কাছে কাকুতি-মিনতি করতে হয়। কোনো দলনেতার মুক্তির জন্য কাকুতি-মিনতি করার ইতিহাস বাংলাদেশে নেই’-যোগ করেন নাসিম।

নিজেদের আন্দোলন-সংগ্রামের কথা তুলে ধরে আওয়ামী লীগের এই জ্যেষ্ঠ নেতা বলেন, আমাদের নেত্রী যখন জেলে ছিলেন, আমরা রাজপথে লড়াই-সংগ্রাম করেছি, মার খেয়েছি; কিন্তু কারও কাছে কোনো দিন কাকুতি-মিনতি করিনি। বিএনপি তাদের নেত্রীর মুক্তির জন্য কাকুতি-মিনতি করছে। কতটা দেউলিয়া হয়ে গেছে বিএনপি নেতারা। তাদের নেতাকে কারাগারে রেখে দুই বছর বিএনপি কর্মসূচিবিহীন একটি দলে পরিণত হয়েছে। আমি মনে করি বিএনপি নেতাদের এ কারণেই পদত্যাগ করা উচিত।

আলোচনাসভায় আরও উপস্থিত ছিলেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান, স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদের সভাপতি ড. আবদুল মান্নান চৌধুরী প্রমুখ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে