রবিবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২১, ০৫:১৪ পূর্বাহ্ন

আমিরের ঘটনায় খেপেছেন ইনজামাম

আমিরের ঘটনায় খেপেছেন ইনজামাম

হঠাৎ অবসরে মোহাম্মদ আমির, সেটাও আবার টিম ম্যানেজম্যান্টের ওপর রাগ করে। পাকিস্তানের ক্রিকেট ইতিহাসের অন্যতম সেরা এই পেসারের এমনভাবে অবসরে যাওয়ার বিষয়টি মানতে পারছেন না দলটির সাবেক অধিনায়ক ও প্রধান নির্বাচক ইনজামাম উল হক।

গত ১৭ ডিসেম্বর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে আকস্মিক অবসরের ঘোষণা দেন আমির। কারণ হিসেবে উল্লেখ করেন, বর্তমান পাকিস্তান টিম ম্যানেজম্যান্টের নানা ধরনের মানসিক চাপ তিনি নিতে পারছিলেন না।

কিন্তু মানসিক নির্যাতনের দোহাই দিয়ে আমিরের মতো একজন খেলোয়াড় কেন সরে যাবেন? পাকিস্তানের ক্রিকেটে এমন ঘটনা খুবই দৃষ্টিকটু এবং ভবিষ্যতের জন্য অশনি সংকেত বলে মনে করছেন ইনজামাম।

‘ক্রিকেট পাকিস্তানে’র সঙ্গে আলাপে ইনজামাম বলেন, ‘আমির একজন ভালো খেলোয়াড়, তার অনুপস্থিতি দলকে ভোগাবে। যদিও আমাদের আরও বোলার আছে, যারা ভালো করছে। কিন্তু পাকিস্তান ক্রিকেট এমন ঘটনা ঘটা উচিত নয়। পাকিস্তান ক্রিকেটকে সেবা দেয়ার পর একজন ক্রিকেটার এভাবে সরে যেতে পারেন না। এটা ভালো দেখায় না।’

অবসরের সময় পরিষ্কারভাবে কারও নাম না বললেও শোনা যায়, পাকিস্তান দলের বোলিং কোচ ওয়াকার ইউনুসের সঙ্গে সম্পর্ক খারাপ হয়ে গিয়েছিল আমিরের। কিন্তু একজনের ওপর রাগ করে অবসরে যাওয়া সঠিক সিদ্ধান্ত হয়নি, মনে করেন ইনজামাম।

পাকিস্তানের কিংবদন্তি এই ব্যাটসম্যানের কথা, যদি বড় কোনো সমস্যা হয়েই থাকে, দুই পক্ষেরই উচিত ছিল কঠিন কোনো সিদ্ধান্ত নেয়ার আগে আলোচনার মাধ্যমে সুরাহা করা।

ইনজামাম বলেন, ‘যদি ওয়াকারের (ইউনুস) সঙ্গে আমিরের কোনো সমস্যা থাকে, মিসবাহর সঙ্গে সে আলাপ করতে পারতো। যদি তাতেও কাজ না হতো, তার পিসিবির কাছে যাওয়া উচিত ছিল। তারপরও যদি সমস্যাটা থেকেই যেতো, তখন না হয় এমন সিদ্ধান্ত নেয়ার অধিকার তার ছিল। এটা দুর্ভাগ্যজনক ব্যাপার যে একজন খেলোয়াড় অবসরে চলে গেল, শুধু একজন মানুষের ওপর তার রাগ থেকে।’

পাকিস্তানের হয়ে ৩৬ টেস্ট, ৬১টি ওয়ানডে এবং ৫০টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন মোহাম্মদ আমির। এর মধ্যে টেস্টে নিয়েছেন ১১৯ উইকেট, ওয়ানডেতে ৮১ এবং টি-টোয়েন্টিতে নিয়েছেন ৫৯ উইকেট।


Comments are closed.

© All rights reserved © 2017 24ghontanews.com
Desing & Developed BY ThemeForest