বৃহস্পতিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২০, ১০:০৪ অপরাহ্ন

অনিশ্চিত টাইগারদের শ্রীলঙ্কা সফর, মুখ খুললেন পাপন

অনিশ্চিত টাইগারদের শ্রীলঙ্কা সফর, মুখ খুললেন পাপন

গত দুদিন ধরে বাংলাদেশের শ্রীলঙ্কা সফর নিয়ে ধোঁয়াশার সৃষ্টি হয়েছে। আদৌ বাংলাদেশ দলের আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ খেলতে লঙ্কায় যাওয়া হবে কিনা তা নিয়ে আজ সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) আলোচনা করতে বিসিবি কার্যালয়ে আসেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডে সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। বিসিবি কার্যালয়ে সিরিজ সম্পর্কিত সিদ্ধান্ত জানাতে সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত হন নাজমুল হাসান পাপন। সেখানে বিসিবি সভাপতি জানান, শ্রীলঙ্কা বোর্ড যেভাবে এই সিরিজ আয়োজন করতে চাইছে সেভাবে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ খেলা সম্ভব নয়।

কথা ছিল, আসন্ন শ্রীলঙ্কা সিরিজে বাংলাদেশ জাতীয় দলের সঙ্গে বিসিবি’র হাইপারফরম্যান্স ইউনিটও (এইচপি) সফর করবে। এর প্রধান কারণ দুটি, প্রথমত বিসিবি’র এইচপি ইউনিট ও লঙ্কান এইচপি ইউনিটের মধ্যকার সিরিজ মাঠে গড়ানোর কথা রয়েছে। আর দ্বিতীয়ত করোনা অতিমারির কারণে যেহেতু স্বাগতিকরা প্রস্তুতি ম্যাচের জন্য কোনো দল দিতে পারছে না তাই বিসিবি হাইপারফরম্যান্স দলের বিপক্ষেই মুমিনুলদের সিরিজের প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার কথা ছিল। কিন্তু হুট করেই আয়োজক দেশের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য নীতিমালার খড়গে অনিশ্চয়তার মুখে পড়েছে হাই পারফরম্যান্স দলের সিরিজটি। কেননা তারা বিসিবিকে পাঠানো স্বাস্থ্য নীতিমালায় স্পষ্টত উল্লেখ করে দিয়েছে করোনা অতিমারির সময়ে এত সংখ্যক ক্রিকেটার যেন দেশটি সফর না করে।

এছাড়া প্রথমে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে শ্রীলঙ্কার বোর্ডকে জানানো হয় যে কোয়ারেনটাইনের সময় ১৪ দিন থেকে কমিয়ে যেন ৭ দিনে আনা হয়। এছাড়াও কোয়ারেনটাইনে থাকাকালীনও যেন ক্রিকেটাররা অনুশীলন করতে পারে। তবে শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট বোর্ড জানিয়ে দিয়েছে এর কোনোটিই সম্ভব নয়। দেশটির ক্রিকেট বোর্ড বিসিবিকে জানিয়েছে কোয়ারেনটাইনের সময় ১৪ দিনই থাকবেন। এবং সেই সঙ্গে বিসিবি’র এইচপি টিমও যেতে পারবে না। আর কোয়ারেনটাইনে থাকা অবস্থায় টাইগার ক্রিকেটাররা অনুশীলনও করতে পারবেন না।

 

এমন অবস্থায় বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন সংবাদ সম্মেলনে জানিয়ে দিয়েছেন, এভাবে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ খেলা সম্ভব নয়। পাপন জানান, ‘শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড থেকে আমাদের জানিয়েছে সেখানে ১৪ দিনের কোরেনটাইনই ক্রিকেটারদের করতে হবে। এবং সেই সঙ্গে এই সময়ে তারা অনুশীলনও করতে পারবে না। আর এইচপি টিমও যেতে পারবে না। এমন অবস্থায় অনুশীলন না করে তো টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ খেলা সম্ভব নয়।’

 

বিসিবি সভাপতি আরও জানান, ‘শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড আমাদের আরও জানিয়েছে যে ক্রিকেটারদের অনুশীলনের জন্য তারা বল থ্রোয়ারও দিতে পারবে না। আর আমরাও দেশ থেকে কোনো বল থ্রোয়ার নিয়ে যেতে পারব না। তাহলে ক্রিকেটাররা অনুশীলন করবে কি করে? এটা তো ছেলেখেলা নয়, এটি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের খেলা। এভাবে আসলে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ খেলা সম্ভব নয়। তাই তাদের আমরা জানিয়ে দিয়েছি এভাবে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ খেলা সম্ভব নয়।’ ‘বাংলাদেশ দল হোটেলে প্রবেশের পর সেখান থেকে বের হতেই পারবে না, এমনকি খাওয়ার জন্যও বের হতে পারবে না। এমন হলে তো সম্ভব নয়। ওদের দেশে ঘরোয়া লিগ হচ্ছে, এতগুলো দল খেলছে তাদের নিয়ে কোনো সমস্যা নেই। আর আমাদের মাত্র একটা দলের জন্য এত সমস্যা? ক্রিকেটাররা অনুশীলন তো করতেই পারবে না আবার ঘর থেকেও বের হতে পারবে না। আমাদের প্ল্যান ছিল আমরা বিশাল একটি দল নিয়ে যাবো, ওখানে অনুশীলন করব এবং সিরিজ খেলে চলে আসব। কিন্তু গতকাল যে চিঠি পেয়েছি সেখানে দেখলাম আমরা যা ভেবেছিলাম তার ধারে কাছে তো নেইই সেই সঙ্গে যেসব দেশে খেলা হচ্ছে সেসব নিয়মের ভেতরেও নেই।’-যোগ করেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।


Comments are closed.

© All rights reserved © 2017 24ghontanews.com
Desing & Developed BY ThemeForest