শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ০২:২৭ অপরাহ্ন

প্রকাশ্যে তরুণীকে গুলি করে খুন

প্রকাশ্যে তরুণীকে গুলি করে খুন

তরুণীকে জোর করে গাড়িতে তোলার চেষ্টা। বাধা দেওয়ায় পয়েন্ট ব্ল্যাঙ্ক রেঞ্জ থেকে গুলি। ভারতের ফরিদাবাদের বল্লভগড়ে সোমবার (২৬ অক্টোবর) ভরদুপুরে প্রকাশ্য রাস্তায় এমন ভয়াবহ ঘটনায় শিউরে উঠেছেন অনেকেই।হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলেও বাঁচানো যায়নি কলেজ পড়ুয়া তরুণী নিকিতা তোমরকে। সিসিটিভি ফুটেজের সূত্র ধরে মূল অভিযুক্ত তৌসিফকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। পরিবারের দাবি, প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়াতেই মরিয়া হয়ে গুলি করে খুন করেছে অভিযুক্ত তৌসিফ। ঘটনার প্রতিবাদে ফরিদাবাদ মথুরা রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখান স্থানীয় বাসিন্দারা। স্পেশাল ইনভেস্টিগেশন টিম গঠন করে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে হরিয়ানা সরকার।

ঘটনার একটি সিসিটিভি ফুটেজ ছড়িয়ে পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। তাতে দেখা যাচ্ছে, নিহত নিকিতা অন্য এক তরুণীর সঙ্গে রাস্তা দিয়ে যাচ্ছিলেন। একটি গাড়ি থেকে দুই যুবক নেমে এক জন তাকে জোর করে গাড়িতে তোলার চেষ্টা করছেন। তরুণী প্রাণপণ চেষ্টা করছেন পালানোর। হাত ধরে টানাটানি, ধস্তাধস্তির মধ্যেই আচমকা পয়েন্ট ব্ল্যাঙ্ক রেঞ্জ থেকে গুলি চালিয়ে দেয় ওই যুবক। ঘটনাস্থলেই লুটিয়ে পড়েন নিকিতা। দৌড়ে গাড়িতে উঠে পালিয়ে যান দু’জন।

পুলিশ জানিয়েছে, পরীক্ষা দিতে কলেজে গিয়েছিলেন নিকিতা। সেখান থেকে ফেরার পথেই এই হামলা। নিকিতাকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তদন্তে নেমে সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখে তৌসিফকে গ্রেপ্তার করেছে হরিয়ানা পুলিশ।বল্লভগড়ের এসিপি জয়বীর সিংহ রাঠি জানিয়েছেন, তৌসিফ নামে এক অভিযুক্তকে আমরা গ্রেপ্তার করেছি। তৌসিফের বাড়ি মেওয়াট এলাকায়। অভিযুক্তদের এক জনের সঙ্গে আগে থেকে পরিচয় ছিল তরুণীর।আগে থেকে নিকিতার সঙ্গে তৌসিফের আলাপ ছিল বলে জানাচ্ছেন তরুণীর পরিবারের সদস্যরাও। নিকিতার এক আত্মীয় জানান, ২০১৮ সালে তারা তৌসিফের বিরুদ্ধে অপহরণের মামলা দায়ের করেছিলেন। তবে পরে বিষয়টি মিটে যায় বলে মামলা আর এগোয়নি।

পুলিশের এক কর্মকর্তা জানান, ২০১৮ সালে ওই অভিযোগ দায়ের হলেও তখন পরিবারের লোকজন কোনো ব্যবস্থা নিতে নিষেধ করেন। তবে নতুন করে অভিযোগ দায়ের হতেই তৌসিফকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।অভিযুক্তদের কঠোর শাস্তির আর্জি জানিয়েছেন নিকিতার মা। তার বক্তব্য, তৌসিফকে এনকাউন্টার না করা পর্যন্ত মেয়ের মৃতদেহ দাহ করবেন না তারা।এলাকাবাসীও এই ঘটনায় পুলিশের বিরুদ্ধে ক্ষুব্ধ। স্থানীয় বাসিন্দারা একটি দোকানে চড়াও হয়ে ভাঙচুর চালিয়েছেন। রাস্তা অবরোধ করে প্রতিবাদ-বিক্ষোভে শামিল হয়েছেন স্থানীয়রা। তাদের সঙ্গে রয়েছেন নিকিতার পরিবারের সদস্যরাও।


Comments are closed.

© All rights reserved © 2017 24ghontanews.com
Desing & Developed BY ThemeForest