শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ০২:২৬ অপরাহ্ন

ময়মনসিংহে আধুনিক মডেলের বাড়ির মালিকদের বিরুদ্ধে দুদকে অভিযোগ

ময়মনসিংহে আধুনিক মডেলের বাড়ির মালিকদের বিরুদ্ধে দুদকে অভিযোগ

খায়রুল আলম রফিক :
কয়েক বছর ধরে নির্মিত হচ্ছে সুউচ্চ বিশালাকার মনকাড়া অসংখ্য আধুনিক মডেলের বাড়ি । ছয় তলা থেকে বার তলা পর্যন্ত নির্মিত এবং নির্মাণাধীন এসব সুউচ্চ বিল্ডিংয়ের মালিকরা কোথায় পেলেন এত টাকা ! উনারা কে বা কারা ? এমন প্রশ্ন উড়ে বেড়াচ্ছে ময়মনসিংহ নগরীর সর্বত্র ।
কিছু কিছু বিল্ডিং মালিকদের বিষয়ে অনুসন্ধানে জানা গেছে, তারা অধিকাংশই সরকারি বিভিন্ন অফিসের কর্মচারি। এরা ১২ /১৩ জন মিলে সিন্ডিকেট করে জমি ক্রয়ের মাধ্যমে আলীশান বাড়ি নির্মাণ করেন । ময়মনসিংহ শহরের ১৮ নং গুলকিবাড়ি এলাকায় একটি সিন্ডিকেট ৩ কোটি টাকায় ৬ শতাংশ জমি ক্রয় করে প্রায় ১১কোটি টাকা নির্মাণব্যয়ে গড়ে তুলেছেন ১১ তলা বিশিষ্ট বহতল ভবন ।
দুদকে দেয়া অভিযোগ থেকে জানা গেছে, ময়মনসিংহের মুক্তাগাছা উপজেলা সহকারী যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা শাহিন আলম,সাদেকুল ইসলাম, ময়মনসিংহ সদর যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা আবু আহসান রেজাউল হক,নান্দাইল উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা, ফয়েজ উদ্দিন,গৌরীপুর যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা নন্দন কুমার দেবনাথ, গৌরীপুর উপজেলার সাবেক সহকারী যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা বর্তমান সিলেট কানাইঘাট উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা জি এম সেলিম রেজা, ভালুকা সমবায় কর্মকর্তা মঞ্জুরুল ইসলাম,ময়মনসিংহ জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের হিসাবরক্ষক এনামুল হক, জামালপুরে কর্মরত ভূমি সহকারী কর্মকর্তা আব্দুল গনি, মাদারগঞ্জ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আইনুল ইসলাম, নান্দাইল ইউনিয়ন পরিষদের সচিব শাহীন, ত্রিশাল উপজেলা সাবেক যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা ও বর্তমান হালুয়াঘাটে কর্মরত মোহাম্মদ আবু জুলহাসসহ ২২ জন ময়মনসিংহ বিভাগে ও জেলায় দীর্ঘদিন কর্মরত থেকে কোটি কোটি টাকা অবৈধ সম্পদের মালিক হয়েছেন।
তারা শহরের আকুয়া, গুলবাড়িসহ কয়েকটি স্থানে জমি ক্রয়সহ কয়েকটি আলিশান বাড়ি নির্মাণ করছেন। তাদের অবৈধ সম্পদ তদন্ত করে ব্যবস্থা নিতে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) চেয়ারম্যান বরাবর একটি অভিযোগ জমা হয়েছে । এই দুর্নীতিবাজ সরকারি কর্মচারীদের অনেকেই ময়মনসিংহ এবং তৎসংলগ্ন জেলা উপজেলার বাসিন্দা, দীর্ঘদিন ধরে কেও একই স্থানে একই দপ্তরে, চাকুরি করেন ।

আলিশান বাড়ির মালিক ১৬ জন! শিরোনামে দৈনিক আমাদের কন্ঠ পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ হয়েছে। যা ময়মনসিংহে টক অব দা সিটি । নগরীরর বহু স্থানে এই দুর্নীতিবাজরা কয়েকজনের সিন্ডিকেট গড়ে জমি ক্রয় ও বাড়ি নির্মাণ করছেন বলে অভিযোগ দীর্ঘদিনের ।

এবিষয় নিয়ে তাদের বিরুদ্ধে অনুসন্ধান বা তদন্ত করা প্রয়োজন। জাতীয় নাগরিক পার্টি কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক সাংবাদিক মনোনেশ দাস বলেন, ময়মনসিংহের বিভিন্ন সরকারি অফিসের কিছু কর্মচারি আছে । যারা ঘুষ অনিয়ম-দুর্নীতি করেন । এটি তাদের অভ্যাস হয়ে দাঁড়িয়েছে।
বহুদিন থেকেই এগুলো হচ্ছে।  বিল্ডিং নির্মাণ, গাড়ি , চলাচলে জৌলুষ অর্থাৎ ভোগ-বিলাসতা দেখে অনেক সময় শনাক্ত হয় যে, এরা কে বা কারা ।  রাষ্ট্র ও জনগণের ক্ষতি করছে । দীর্ঘদিন ধরে আইনের আওতায় না আসায় এরা আরও উৎসাহিত হচ্ছে। ময়মনসিংহর সিনিয়র আইনজীবী এড. নজরুল ইসলাম চুন্ন বলেন, দুর্নীতিবাজদের চিহ্নিত করে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া প্রয়োজন ।


Comments are closed.

© All rights reserved © 2017 24ghontanews.com
Desing & Developed BY ThemeForest