রবিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ০২:১৭ পূর্বাহ্ন

করোনার তৃতীয় ঢেউ নিয়ে সতর্ক করলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী

করোনার তৃতীয় ঢেউ নিয়ে সতর্ক করলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী

বেশ কিছুদিন ধরে করোনায় মৃত্যু ও শনাক্ত নিয়ন্ত্রণে থাকলেও সবাইকে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। বলেছেন, ‘দেশে যাতে করোনাভাইরাসের তৃতীয় ঢেউ না আসে সে ব্যাপারে সবাইকে সজাগ থাকতে হবে।’

বুধবার রাজধানীর হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তাদের (ইউএইচএফপিও) প্রথম সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এই আহ্বান জানান।স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘কয়েক দিনে ধরে বিশ্বে আবার সংক্রমণ বাড়ছে, আমাদের দেশে করোনার তৃতীয় ঢেউ আবার আসুক, এটা আমরা কেউ চাই না। এজন্য এখন থেকে সবাইকে সচেতন হতে হবে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে।’

গত বছরের মার্চে দেশে প্রথম করোনার রোগী শনাক্ত হয়। এরপর কখনো মৃত্যু ও শনাক্তের ঊর্ধ্বগতি, কখনো কমে আসতে থাকে হার।সবশেষ গতকাল মঙ্গলবার দেশে করোনায় মারা গেছেন সাতজন। এ নিয়ে মোট মৃত্যু ২৭ হাজার ২৮৫ জনের। দেশে এ পর্যন্ত এক কোটি এক লাখ ৩৫ হাজার ৪২টি নমুনা পরীক্ষায় করোনা শনাক্ত হয়েছে ১৫ লাখ ৬৬ হাজার ২৯৬ জন। যাতে মোট শনাক্তের হার ১৫.৪৫ শতাংশ। যদিও সবশেষ একদিনের শনাক্ত হার ২.২০ শতাংশ।

অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যসেবার মান বাড়াতে এইখাতে জনবল নিয়োগের পরিকল্পনা নিয়ে কথা বলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। এজন্য একটি জনবল কাঠামো তৈরি করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘স্বাস্থ্যসেবার মানোন্নয়নে একটি জনবল কাঠামো তৈরি করা হয়েছে। সেটি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে পাঠানো হয়েছে। এটি অনুমোদন দিলে শিগগিরই পৌনে পাঁচ লাখ নিয়োগ দেওয়া হবে স্বাস্থ্য খাতে। এই নিয়োগ কমপ্লিট হলে স্বাস্থ্য সেবার মান আরও উন্নত হবে।’

জাহিদ মালেক বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে স্বাস্থ্যসেবা ব্যবস্থাপনায় নাটকীয় পরিবর্তন হয়েছে। এই পরিবর্তন আমাদের ধরে রাখতে হবে। হাসপাতাল ব্যবস্থাপনার মান উন্নতি করতে হবে। হাসাপাতাল পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে।’ করোনা প্রতিরোধী টিকা কার্যক্রম নিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, করোনা প্রতিরোধে ভ্যাক্সিনেশন কার্যক্রম চলমান রয়েছে। প্রতি মাসে তিন কোটি এবং তার থেকে বেশি ভ্যাকসিন দেওয়ার পরিকল্পনা হাতে নেওয়া হয়েছে। এটা চলমান থাকলে ডিসেম্বরের মধ্যে ৫০ শতাংশ মানুষকে টিকা কর্মসূচির আওতায় আনা সম্ভব হবে।

উপজেলার স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্য করে জাহিদ মালেক বলেন, ‘আপনাদের মাধ্যমে সরকারের অর্জন এবং সরকারের দুর্নাম উঠে। আপনাদের মাধ্যমে উপজেলা পর্যায়ে সবচেয়ে বেশি মানুষ স্বাস্থ্যসেবা গ্রহণ করে। আপনাদের কাজের ওপর সরকারের ইমেজ নির্ভর করে। তাই গ্রামের মানুষের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতে আপনাদের আরও সচেতন হতে হবে।’

অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যসচিব লোকমান হোসেন মিয়া, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আবুল বাশার খুরশীদ আলমসহ আরও অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

 


Comments are closed.

© All rights reserved © 2017 24ghontanews.com
Desing & Developed BY ThemeForest