সোমবার, ৩০ নভেম্বর ২০২০, ১০:১৩ পূর্বাহ্ন

সুখবর দিলেন জেনিফার

সুখবর দিলেন জেনিফার

ঢাকা : কোনো মাত্রায় তিনি সীমাবদ্ধ নন। তাকে বলা হয় বহুমাত্রিক। সর্বক্ষেত্রে তার অবাধ বিচরণ। তিনি গায়িকা, নায়িকা, নৃত্যশিল্পী, প্রযোজক, টিভি চ্যানেলে রিয়েলিটি শোর বিচারক। এমনকি যুক্ত রয়েছেন বিভিন্ন ব্যবসা ও প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে। যিনি এত মাধ্যমে সব সময় বিচরণ করেন তিনি আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে সব সময় থাকবেন এটাই স্বাভাবিক।

এ তারকা নিজেই একটি ব্র্যান্ড। বলছি জেনিফার লোপেজের কথা। মানুষের বয়স বাড়লে তার ধৈর্যশক্তি কমতে থাকে। আর এ ধারণাটাকেই মিথ্যা প্রমাণিত করেছেন লোপেজ। বয়স ৫১ হলেও যেন বিন্দুমাত্র কমেনি তার শারীরিক সৌন্দর্যের ঝলকানি। তার শারীরিক সৌন্দর্য এখনো আগের মতোই আলো ছড়াচ্ছে সবখানে। একান্ন বছর বয়সেও অষ্টাদশী বালিকার মতোই উদ্যম তার চলাফেরা।

নতুন খবর হলো শিগগিরই বিয়ের বাদ্য বাজছে আমেরিকান গায়িকা ও অভিনেত্রী জেনিফার লোপেজের। বর হিসেবে থাকছেন দীর্ঘদিনের প্রেমিক ও বেসবল তারকা অ্যালেক্স রড্রিগেজ। সম্প্রতি হলিউড রিপোর্টারকে লোপেজ বিয়ের বিষয়টি জানান। মজার বিষয় হচ্ছে, বিয়েতে তার ১২ বছর বয়সী মেয়ে এমি গান গাইবে বলেও নিশ্চিত করেছেন।

জানা গেছে জেনিফারের বিয়ে আরো আগে হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু করোনাভাইরাস বাস্তবতায় সেটি স্থগিত হয়ে যাওয়ায় এ তারকার মন খানিকটা ভেঙে গেছে!

জেনিফার বলেন, ‘আমার মনটা একটু খারাপ। কেননা, বেশ বড় ধরনের পরিকল্পনা তৈরি করে রেখেছিলাম। তবে স্রষ্টা যা ভালো মনে করেন, তা-ই করেছেন। আমাদের এখন চেয়ে চেয়ে দেখা আর অপেক্ষা করা ছাড়া উপায় নেই। তবে বিশ্বাস করি, নিশ্চয় যা হবে, মঙ্গলের জন্যই হবে।’

এ সময় তিনি আরো বলেন, ‘সুপার বোল’ আয়োজন এবং ‘ওয়ার্ল্ড অব ড্যান্স’-এর শুটিং শেষে (বিয়ের জন্য) সময় রেখেছিলাম। এ বছর কত কিছু করারই তো পরিকল্পনা ছিল। কিন্তু সবকিছুই এখন স্থবির হয়ে রয়েছে।’

এর আগে অবশ্য জেনিফার জোর দিয়ে বলেছিলেন, বিয়ের দিন-তারিখ তার কাছে কোনো ব্যাপার নয়। বলেছিলেন, ‘ওকে (অ্যালেক্স) আমি পছন্দ করি। ওকে বলেছি, তোমার যা করতে ইচ্ছে করবে, দুজন আলাপ করে নেব।’ বলেছি, ‘তবে যদি দুজন সারাজীবন একসঙ্গে থাকার বিষয় আসে, সে ক্ষেত্রে তাড়াহুড়োর কিছু নেই!’

এদিকে মায়ের বিয়েতে কোন গান গাইবে-এমন প্রশ্নের জবাবে গণমাধ্যমে জেনিফার ও অ্যালেক্সের মেয়ে এমি বলেন, ‘মা ও আমার সম্পর্কের সঙ্গে সম্পৃক্ত, এমন গানই গাইব। যখন ছোট ছিলাম, মা আমাকে প্রতিদিন “ইউ আর মাই সানশাইন” শুনিয়ে ঘুম পাড়াতেন। মা ও অ্যালেক্সের সঙ্গে সম্পৃক্ত, এমন একটা গানের কথাও ভাবছি।’

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সাল থেকে একসঙ্গে থাকছেন জেনিফার ও অ্যালেক্স।

সর্বগুণের অধিকারী হলেও জেনিফার লোপেজ নিজেকে একজন গায়িকা হিসেবেই পরিচয় দেন। কণ্ঠই তার মূল সম্পদ বলে মনে করেন তিনি। গানের মানুষ হয়েও অভিনয়ে বেশ সিরিয়াস জেনিফার লোপেজ হলিউড তারকা হিসেবে চমৎকার একটি অবস্থানে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। অবশ্য এর পেছনে তার একান্ত প্রচেষ্টা সবচেয়ে বেশি কাজ দিয়েছে। হলিউডে জেনিফার লোপেজ প্রথমত একজন গায়িকা, যিনি অভিনয়ে এসে সাফল্য পেয়েছেন।


Comments are closed.

© All rights reserved © 2017 24ghontanews.com
Desing & Developed BY ThemeForest