সোমবার, ১৪ Jun ২০২১, ০৯:১৩ অপরাহ্ন

শাক্তায় হাজারো মানুষের স্লোগান লিটন চেয়ারম্যানের অবদান

শাক্তায় হাজারো মানুষের স্লোগান লিটন চেয়ারম্যানের অবদান

# করোনা জুদ্ধাকে আবারো চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চায় শাক্তার জনগন।

# হাজার বছর বেচে থাকুক মসজিদে মসজিদে দোয়া।

# শাক্তায় জনগনের একমাত্র ভরসা আওয়ামীলীগ লিটন চেয়ারম্যান ।

শাহিন চৌধুরী : ঢাকা কেরানীগঞ্জের সাক্তা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হাজী মোঃ সালাহউদ্দিন লিটনের আয়ু বৃদ্ধি ও সুসাস্থের জন্য মসজিদে মসজিদে দোয়া করছেন সাক্তা ইউনিয়ন বাসি। একজন সৎ সাহসী ত্যাগী করোনা যুদ্ধা মানবতার কান্ডারী ও পরিশ্রমী চেয়ারম্যান আওয়ামীলীগের নিবেদিত প্রান হিসেবে দলে আছেন বলেই সাক্তা ইউনিয়নের মানুষ সান্তিতে বসবাস করছেন স্থানীয় আওয়ামীলীগের অনেক নেতা সহ সাধারণ জনগনের কথা। আগামী ইউপি নির্বাচনে কেরানীগঞ্জ মডেল থানাধীন শাক্তা ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ থেকে দলিয় চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে আশাবাদী ও সংগ্রামী জনপ্রিয় একমাত্র আওামীলীগ চেয়ারম্যান প্রার্থী হাজী মোঃ সালাহউদ্দিন লিটন। তিনি ছাত্র রাজনীতির মধ্য দিয়ে আওামীলীগে প্রদারপন করেন। সালাহউদ্দিন লিটন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের শাক্তা ইউনিয়ন শাখার সভাপতি ছিলেন, পরবর্তীতে ছাত্রলীগের কেরানীগঞ্জ উপজিলার সাধারণ সম্পাদক ছিলেন এবং তিনি কেরানিগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের আহবায়ক কমিটির সদস্য ও ছিলেন। সেই থেকে হাটি হাটি পা করে তিনি ২০১৬ সালে ইউপি নির্বাচনে সাক্তা ইউনিয়নে নৌকা প্রতীক নিয়ে চেয়ারম্যান পদে জয়ী হন। স্থানীয় অনেকের কাছে জানতে চাইলে তারা বলেন আগামীতেও সাক্তা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আমরা হাজী মোঃ সালাউদ্দিন লিটন কে দেখতে চাই এটাই আমাদের দাবি এবং লিটনের মতো জন দরদী এই সাক্তায় আরেক জন নাই বলেও অনেকেই বলেন। আরো জানাযায় তিনি বর্তমানে চেয়ারম্যানের দায়িত্বে থেকে সাক্তায় মাদকের বিরুদ্ধে জিরো ট্রলারেঞ্চ দেখিয়েছেন ,এবং ভুমি দস্যু দের নির্মূল সহ প্রতিবাদি হয়ে উঠেছিলেন বর্তমানেও অনড় । আরো জানাযায় এলাকার সালিসী গুলোতে ন্যায় বিচার ও গরীবদের নিজ তহবিল থেকে নগদ অর্থ সহ খাদ্য প্রদান করে থাকেন ,লিটন চেয়ারম্যান এলাকার মধ্যে বেপক উন্নয়ন করেছেন এবং আগামীতে আরো করবেন বলে বিভিন্ন জায়গায় খোলা মাঠে সব সময় জনগনের সামনে বলে থাকেন এলাকার জনগনের সাথে কথাবলে জানায়ায়। দৈনিক আমাদের কণ্ঠ থেকে সাংবাদিক শাহিন চৌধুরীর সাথে সাক্ষাতে লিটন চেয়ারম্যান বলেন বর্তমানে আমি চেয়ারম্যান আছি গরিব অসহায় ও দুস্থ আমার কাছে আসলে আমি কোন দিন তাদের কে খালি হাতে ফিরিয়ে দেই না, সরকারী অনুদান শেষ হয়ে গেলে প্রয়োজনে নিজ তহবিল থেকে আমি অনুদান দিয়ে থাকি, সাক্তায় বাল্ল বিবাহ বন্ধ করা হয়েছে ,ভুমি দস্যু দের জেলে পাঠানো হয়েছে ,মাদকের বিরুদ্ধে কঠোর সব সমই সতর্ক আছি থাকব,বিধবা ভাতা দিচ্ছি মাতৃ জনিত ভাতা দিচ্ছি ,বৃদ্ধ ভাতা দিচ্ছি , প্রতিবন্ধী ভাতা দিচ্ছি, সব সমই রাতের আঁধারে গরীব দুখিদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে করোনা কালিন তাদের কে নগদ অর্থ ও খাবার দিচ্ছি, লিটন আরো বলেন আল্লাহ আমাকে সাক্তায় জনগনের সেবা করতে পাঠিয়েছেন এখনো করছি আগামীতেও জনগনের দোয়া থাকলে চেয়ারম্যান হিসেবে ইনসা আল্লাহ প্রতি ঘরে ঘরে সব গিয়ে সব সময় খোঁজ খবর নিচ্ছি এবং নিবো। এক পর্যায় লিটন গরীবদের কস্টের কথা বলতে বলতে কাণ্ণায় ভেঙ্গে পরেন বলেন গরীবের কস্ট আমি দেখতে পারিনা চোখের পানি সাম্লাতে না পেরে আমাদের কণ্ঠকে তার মনের অনেক কথাই বলতে পারলেন না ।তিনি আরো বলেন সাক্তায় গরীবের কাণ্ডারি ,মাদকের বিরুদ্ধে সোচ্চার ,ভুমি দস্যু দের নির্মূল করা হিসেবে আগামী নির্বাচনে সত্যিকারের আওয়া মীলীগের ত্যাগী নেতা আমি সালাউদ্দিন লিটন মনোনয়ন চাই এবং জনগনের সেবা করার জন্য পাবো ইনসা আল্লাহ্‌ ।সেই সাথে সাক্তা ইউনিয়নের সকলকে ঈদ উল ফিতরের সুভেচ্ছা ও সকলের সুসাস্থ কামনা করেন।


Comments are closed.

© All rights reserved © 2017 24ghontanews.com
Desing & Developed BY ThemeForest