রবিবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২১, ০৪:০১ অপরাহ্ন

রবি আ’লীগে যোগ দিয়েই কোটিপতি!

রবি আ’লীগে যোগ দিয়েই কোটিপতি!

স্টাফ রিপোর্টার:  ছিলেন নসিমন চালক, ২০০৮ সালে বিএনপি থেকে আওয়ামী লীগে যোগ দিয়েই বনে গেছেন কোটিপতি। এলাকায় সৃষ্টি করেছেন ত্রাসের রাজত্ব। পুকুর দখল, জমি দখলসহ নানা অভিযোগ অপকর্মে জড়িত যুবদল থেকে আসা চৌগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রবিউল ইসলাম রবির বিরুদ্ধে।
সম্প্রতি জমি নিয়ে বিরোধে রবি ও তার সহযোগীরা ছুরিকাঘাত করে হত্যা করেছে আওয়ামী লীগ নেতার স্ত্রী শিল্পীকে। এ ঘটনায় রবিকে প্রধান আসামি করে ১৫ জনের নামে একটি হত্যা মামলা হয়েছে। সোমবার রাতে নিহতের মেয়ে মোছা. ইতি খাতুন বাদী হয়ে সিংড়া থানায় এ মামলা দায়ের করেন। এছাড়া মামলায় আরও ৪ থেকে ৫ জনকে অজ্ঞাতনামা নামা আসামি করা হয়েছে।
এদিকে গত ৬ সেপ্টেম্বর প্রকাশ্যে দিবালোকে আওয়ামী লীগের কর্মী শিল্পী বেগমকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করে পালিয়ে যান রবিউল ইসলাম রবি। আর এই হত্যাকাণ্ডের ৪ দিন পেরিয়ে গেলেও প্রধান আসামি রবিউল ইসলামের বিরুদ্ধে কোনো সাংগঠনিক ব্যবস্থা না নেয়ায় আওয়ামী লীগের দলীয় নেতাকর্মীদের মাঝে সমালোচনার ঝড় বইছে।
এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, এক সময় রবিউল ইসলাম রবি চৌগ্রাম ইউনিয়ন যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন এবং এলাকায় নসিমন (ভটভটি) চালিয়ে জীবনযাপন করতেন। কিন্তু ২০০৮ সালে হঠাৎ বিএনপি থেকে আওয়ামী লীগে যোগদান করে এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেন। রাতারাতি বাড়ি-গাড়ির মালিক বনে যান তিনি। সুদে কারবারি, পুকুর দখল ও চাঁদাবাজির কারণে এলাকার সাধারণ মানুষ অতিষ্ঠ হয়ে উঠেন। তার ভয়ে এলাকার নির্যাতিত সাধারণ মানুষ মুখ খুলতে সাহস করে না।
এছাড়াও এ হত্যা মামলার প্রধান আসামি আওয়ামী লীগ নেতা রবিউল ইসলাম রবির বিরুদ্ধে চৌগ্রাম ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আজাহার আলী হত্যাসহ বিভিন্ন মামলা হলেও বারবার তিনি অদৃশ্য শক্তির কারণে পার পেয়ে যান।
চৌগ্রাম ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাঈদ আবুল বাসার শিপলু বলেন, বিএনপি সরকার ক্ষমতায় থাকাকালে রবিউল ইসলাম রবি আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে খুর দিয়ে রক্তাক্ত জখম করেন। তিনি প্রাণে বেঁচে গেলেও তার শরীরে নিরানব্বইটি সেলাই দিতে হয় এবং তাকে দীর্ঘদিন সেই যন্ত্রণা ভোগ করতে হয়েছে। বিএনপি ক্ষমতায় থাকার কারণে সে মামলা থেকে রেহাই পায়। পরে বিএনপি থেকে আওয়ামী লীগে যোগদান করে আবার এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব সৃষ্টি করেছে। আর এসব হাইব্রিড ও সুবিধাভোগী আওয়ামী লীগ নেতার কারণে আজ ত্যাগী নেতাকর্মীরা প্রতিনিয়তই নির্যাতিত হচ্ছেন।
সাবেক সিংড়া উপজেলা ছাত্রলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি মতিয়ার রহমান মিলন বলেন, সম্প্রতি আওয়ামী লীগ নেতা রবিউল ইসলাম রবির নেতৃত্বে অতর্কিত হামলা চালিয়ে তাকে হত্যার চেষ্টা চালানো হয়েছিল। কিন্তু তিনি প্রাণে বেঁচে গেলেও এ বিষয়ে মামলা করেও কোনো প্রতিকার পাননি।
উপজেলা আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক ও উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আবদুল ওয়াদুদ দুদু বলেন, তার একটি পুকুর প্রায় ৮ বছর ধরে জবরদখল করে রেখেছে রবিউল ইসলাম রবি। আর এক সময়ের নসিমন (ভটভটি) চালক রবি এখন পালসার মোটরসাইকেল নিয়ে ঘোরাফেরা করেন। বর্তমানে দুটি ট্রাকসহ অনেক সম্পত্তির মালিক রবি।
চৌগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. আলতাব হোসেন জিন্নাহ বলেন, দলীয়ভাবে রবিউল ইসলাম রবির বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। তবে তার বিরুদ্ধে এখন পর্যন্ত কোনো সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়ার সিদ্ধান্ত হয়নি।
এ বিষয়ে জানতে অভিযুক্ত আওয়ামী লীগ নেতা রবিউল ইসলাম রবির মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তা বন্ধ পাওয়া যায়। তবে এ বিষয়ে রবির মেজো ভাই সাইফুল ইসলাম শাবুর মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, তার ভাই ২০ বছর আগে নসিমন চালাতেন। আর দুটি ট্রাক ও জমিজমা যা কিছু করেছেন ধার-দেনা করেই করেছেন। এর চেয়ে বেশি কিছু বলতে পারবেন না বলে জানান তিনি।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সিংড়া থানার এসআই কিশোর কুমার বলেন, এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত সাদ্দাম হোসেন নামের এক আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি আসামিদের আটকের চেষ্টা চলছে। আর মামলার প্রধান আসামি রবিউল ইসলাম রবির বিরুদ্ধে অন্য কোনো মামলা আছে কিনা তার জানা নেই। তবে লোকমুখে শুনেছেন তিনি একাধিক মামলার আসামি।
এ বিষয়ে সহকারী পুলিশ সুপার সিংড়া সার্কেল মো. জামিল আকতার বলেন, আসামি রবিউল ইসলাম রবির বিরুদ্ধে সিংড়া থানায় হত্যা, মারপিটসহ ৪টি মামলা রয়েছে। তাছাড়াও তার বিরুদ্ধে জমি দখল, খাস পুকুর দখলের অভিযোগ রয়েছে। আর এগুলো করেই সম্পদের মালিক হয়েছেন বলে জানান তিনি।
উল্লেখ্য, গত ৬ সেপ্টেম্বর প্রকাশ্য দিবালোকে চৌগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মৃত ইদ্রিস আলী মণ্ডলের সহধর্মিণী আওয়ামী লীগ কর্মী শিল্পী বেগমকে ছুরিকাঘাতে হত্যা ও তার ছোট বোন লাভলী পারভীনকে রক্তাক্ত জখম করে গা-ঢাকা দেন রবিউল ইসলাম রবি।


Comments are closed.

© All rights reserved © 2017 24ghontanews.com
Desing & Developed BY ThemeForest