শনিবার, ২৪ Jul ২০২১, ০২:৩৯ অপরাহ্ন

মোটরসাইকেল বেপরোয়া গতি কেড়ে নিচ্ছে প্রাণ ঘটছে ভয়াবহ দুর্ঘটনা

মোটরসাইকেল বেপরোয়া গতি কেড়ে নিচ্ছে প্রাণ ঘটছে ভয়াবহ দুর্ঘটনা

আঃ আলিম খাঁন-রায়গঞ্জ,সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধিঃ ভাড়াটে মোটরসাইকেল সহ উঠতি বয়সী তরুণরা মজা করে বেপরোয়া গতিতে মোটরসাইকেল চালানোর কারনে সিরাজগঞ্জের বিভিন্ন মহাসড়কে বাড়ছে একের পর এক মোটরসাইকেল দুর্ঘটনা। প্রাণহানী সহ পঙ্গুত্বের শিকার হতে হচ্ছে অনেককে। প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, দুর্ঘটনার মুল কারণ অদক্ষ ও বেপরোয়া গতি। জানা গেছে,বিগত এক-দেড় মাসের ব্যবধানে সলঙ্গা সহ সিরাজগঞ্জের বিভিন্ন মহাসড়কে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নারী-পুরুষসহ অন্তত ১০/১২ জন নিহত হয়েছেন । এ সময় আহত হয়ে দুর্ঘটনার স্মৃতি নিয়ে বয়ে বেড়াচ্ছেন অনেকেই। আবার অনেকে পঙ্গু হয়ে সংসারের বোঝা হয়ে দাঁড়িয়েছেন। বেপরোয়া ভাবে মোটরসাইকেল চালানোর কারনে সিরাজগঞ্জের মহাসড়কে প্রতিদিনই ঘটছে ভয়াবহ দুর্ঘটনা। হেলমেট বা একাধীক যাত্রীর কারনে পুলিশ মাঝে মধ্যে অভিযান চালিয়ে মোটরসাইকেল আটক বা জরিমানা করলেও তা কিন্তু বেপরোয়া গতির কারণে নয়। সচেতনদের মতে, মহাসড়কে ভাড়াটে মোটরসাইকেল চালানো নিষেধ বা বেপরোয়া গতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ কোন পদক্ষেপ নেয় না বলেই এত মোটরসাইকেল দুর্ঘটনা। গত মে-জুন মাসের এক পরিসংখ্যানে দেখা যায়, ১৭ জুন হাটিকুমরুল নুর ফিলিং স্টেশনের কাছে ট্রাকের ধাক্কায় ভাড়ায়চালিত মোটরসাইকেল চালক তুহিন নিহত হয়। ৭ জুন ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেলে সলঙ্গার হাটিকুমরুল রোড গোলচত্বর ধোপাকান্দি নামক স্থানে রওশনারা বেগম নিহত হয়। ৪ জুন সলঙ্গার ভেংড়ি নামক স্থানে কাভার্ড ভ্যানের ধাক্কায় মোটরসাইকেল চালক সোবাহান সরকার নিহত হয় , ১৮ মে সয়দাবাদে ট্রাকের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী মনিরা আক্তার মৌ নিহত হয়,১৯ মে কামারখন্দের কোণাবাড়ীতে ট্রাকের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী বাবুল শেখ নিহত হয়, ১২ মে সলঙ্গায় ট্রাকের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী নুরনবী নিহত হয়, ৯ মে ঝাঐলে ট্রাকের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী সাদেকুল হক নিহত হয়, ৬ মে ট্রাকের ধাক্কায় মোটরসাইকেল চালক মনির শেখ নিহত হয় এবং ১৮ এপ্রিল শাহজাদপুরে নসিমন ও মোটরসাইকেল সংঘর্ষে সুজন ও শামীম নামে দুই মোটরসাইকেল আরোহী নিহত হয়। এভাবে গত দেড় মাসের ব্যবধানে সিরাজগঞ্জের বিভিন্ন মহাসড়কে ঘটছে অনেক দুর্ঘটনা। পুলিশের চোখের সামনে মহাসড়কে ভাড়ায় চালিত মোটর সাইকেল মহড়া দিলেও পুলিশের কোন ভুমিকা নেই বলে অভিযোগ করেন প্রত্যক্ষদর্শীরা। ১৬ থেকে ২২ বছরের এসব মোটরসাইকেল চালকেরা ভালো ভাবে গাড়ি চালাতে পারে না,সিগন্যাল বোঝে না,একাধীক যাত্রী উঠায় বলে দুর্ঘটনার কবলে পড়তে হয় এমন অভিযোগ দুরপাল্লার বাস-ট্রাক ড্রাইভারদের। এ বিষয়ে হাটিকুমরুল হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শাহজাহান আলী জানান,করোনাকালীন লকডাউনে হাটিকুমরুলে ভাড়াটিয়া মেটরসাইকেল বৃদ্ধি পেলেও বর্তমান কম। তিনি আরও জানান,বেপরোয়া গতি সহ মহাসড়কে এসব ভাড়াটিয়া মোটরসাইকেল চালকদের বিরুদ্ধে মামলা ও আটক অভিযান অব্যাহত আছে।


Comments are closed.

© All rights reserved © 2017 24ghontanews.com
Desing & Developed BY ThemeForest