শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ০২:০৬ অপরাহ্ন

ছাত্রলীগ নেতা সাইফুরের দখলে হোস্টেল সুপারের বাংলো!

ছাত্রলীগ নেতা সাইফুরের দখলে হোস্টেল সুপারের বাংলো!

সিলেটে এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে স্বামীকে বেঁধে রেখে স্ত্রীকে গণধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি ছাত্রলীগ নেতা সাইফুর রহমানের বিরুদ্ধে হোস্টেল সুপারের বাংলো দখলের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ধর্ষণকাণ্ডের পর শুক্রবার (২৫ সেপ্টেম্বর) রাতে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রাথমিক অনুসন্ধানে এমনটা জানতে পেরেছে।

পুলিশ জানিয়েছে, এমসি কলেজ হোস্টেল সুপারের বাংলোতে দীর্ঘদিন ধরে অবৈধভাবে অবস্থান করছেন আসামি সাইফুর রহমান। তার দখলে থাকা ওই বাংলো থেকেই পাইপগানসহ বিভিন্ন দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় তার বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে একটি মামলাও হয়েছে।

শাহপরান থানার ওসি কাইয়ুম চৌধুরী জানান, দীর্ঘদিন ধরে হোস্টেল সুপারের বাংলোটি ছাত্রলীগ নেতা সাইফুর রহমানের দখলে রয়েছে। ওই বাংলোতে তার ব্যবহৃত কক্ষ থেকেই একটি পাইপগান, চারটি রামদা, একটি ছুরি ও দুটি লোহার পাইপ উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানান তিনি। এ ঘটনায় তার বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে পৃথক আরেকটি মামলা হয়েছে বলে জানান ওসি।

গতকাল শুক্রবার সিলেটের এমসি কলেজে স্বামীর সঙ্গে বেড়াতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার হন এক তরুণী। রাত সাড়ে ৯টার দিকে টিলাগড় এলাকার কলেজটির ছাত্রাবাসে এ ঘটনা ঘটে। ওই তরুণীকে ক্যাম্পাস থেকে তুলে ছাত্রাবাসে নিয়ে ধর্ষণ করা হয় বলে পুলিশ জানিয়েছে। এ ঘটনায় ভিকটিমের স্বামী বাদী হয়ে শাহ পরান থানায় একটি মামলা করেছেন। মামলায় ছাত্রলীগের ৬ নেতাকর্মী ও অজ্ঞাত আরও ৩ জনকে আসামি করা হয়েছে।

মামলার আসামিরা হলেন- এমসি কলেজ ছাত্রলীগের নেতা ও ইংরেজি বিভাগের মাস্টার্সের ছাত্র শাহ মো. মাহবুবুর রহমান রনি (২৫), মাহফুজুর রহমান মাসুম (২৫), সাইফুর রহমান (২৮), রবিউল ইসলাম (২৫), অর্জুন লস্কর (২৫) ও তারেকুল ইসলাম তারেক (২৮) ।

এর মধ্যে রবিউল ও তারেক (২৮) বহিরাগত ছাত্রলীগ কর্মী বলে জানা গেছে। আসামিদের মধ্যে সাইফুরের বাড়ি বালাগঞ্জে, রবিউলের দিরাইয়ে, মাছুমের কানাইঘাটে, অর্জুনের জকিগঞ্জে, রনির হবিগঞ্জে এবং তারেকের বাড়ি সুনামগঞ্জে।


Comments are closed.

© All rights reserved © 2017 24ghontanews.com
Desing & Developed BY ThemeForest