বুধবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২০, ০৮:২৩ পূর্বাহ্ন

কমলগঞ্জে ইউপি সদস্যকে জড়িয়ে মিথ্যা অপপ্রচারে এলাকাবাসীর নিন্দা

কমলগঞ্জে ইউপি সদস্যকে জড়িয়ে মিথ্যা অপপ্রচারে এলাকাবাসীর নিন্দা

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি:: মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জ উপজেলার রহিমপুর ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ড সদস্য মো: আব্দুস সালামের বিরুদ্বে অপপ্রচারের তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন এলাকাবাসী। ইউপি সদস্য আব্দুস সালাম এক প্রতিবাদ লিপিতে উল্লেখ করেন, গত ২৯ সেপ্টেম্বর সিলেট মিরর পত্রিকা ও নিউটার্ন অনলাইনসহ আঞ্চলিক কয়েকটি প্রিন্ট ও অনলাইন পত্রিকায় “কমলগঞ্জে বসতভিটা দখলের চেষ্টার অভিযোগ” শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদটি আমার দৃষ্টিগোচর হয়েছে। সংবাদটিতে আমাকে জড়িয়ে উল্লেখ করা হয়, স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুস সালামের নেতৃত্বে অমর মালাকার তার পরিবারের লোকজন নিয়ে বসতভিটা (গোডাউন) দখলের চেষ্টা করি ও ওই জমির প্রতি আমার নাকি লোলুপ দৃষ্টি পড়ে আমি নাকি করুণাময় দাসের ছেলে নান্টু দাসের কাছে দেড় লাখ টাকা দাবি করি, দাবিকৃত টাকা না দিলে তার খরিদকৃত জমি নিয়ে ঝামেলা হবে বলে হুমকি দেই বলে যে তথ্য উপস্থাপন করা হয়েছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা, ভিত্তিহীন ও বানোয়াট। আগামী ইউপি নির্বাচনকে সামনে রেখে আমার জনপ্রিয়তা নষ্ট করতে একটি কুচক্রী মহল আমার বিরুদ্বে চক্রান্ত ষড়যন্ত্র অব্যাহত রেখেছে সমাজে আমার সুনাম নষ্ট করার জন্য। দেড় লাখ টাকা দাবি ও হামলার বিষয়টি সম্পুর্ন মিথ্যা বানোয়াট উদ্যেশ্য প্রণোদিত। সে দিনের ঘটনার সংবাদ সম্মেলনে ভুক্তভোগী পরিবারের মুল ব্যাখ্যা হল: মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে জমি সংক্রান্ত বিরোধকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় গর্ভবতীসহ ৩ জন আহত হয়েছেন। আহতরা কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এ ঘটনায় কমলগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। শনিবার সকাল ১১ টায় উপজেলার রহিমপুর ইউনিয়নের লক্ষীপুর গ্রামে ঘটনাটি ঘটে। রোববার সন্ধ্যায় সাপ্তাহিক কমলগঞ্জের কাগজ পত্রিকার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে ঘটনার সুবিচার দাবী করেছেন আক্রান্তরা। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে অমর মালাকারের স্ত্রী পলি মালাকার বলেন, রহিমপুর ইউনিয়নের লক্ষীপুর গ্রামের উমেশ মালাকারের ছেলে অমর মালাকার একজন সহায় সম্বলহীন একজন অসহায় মানুষ। তিনি কোন রকম দিনানিপাত করছেন। দীর্ঘ দিন থেকে একই এলাকার নিখিল মালাকার, করুনা দাশ, রাজেন্দ্র মালাকারের সাথে তাদের ভুমি সংক্রান্ত বিরোধ চলছে। এ বিষয়ে বিজ্ঞ যুগ্ন জেলা জজ ২য় আদালতে মোকদ্দমা নং-৭৫/২০২০ ইং (স্বত্ব বাটোয়ারা) এবং জুনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্যাট আদালত, মৌলভীবাজারে সিআর মামলানং-২৩৯/২০২০ ইং (কমলগঞ্জ) চলমান। মামলা দায়েরের পর থেকে বিবাদীগণ অমর মালাকারকে বিভিন্ন ভাবে ভয়ভীতি ও হুমকি দিচ্ছে। এমতাবস্থায় তাদের জান মালের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে গত ২৫ সেপ্টেম্বর কমলগঞ্জ থানায় সাধারণ ডায়েরী নং-১১৪৩/২০২০ করা হয়। এর ধারবাহিকতায় গত ২৬ সেপ্টেম্বর শনিবার সকাল ১১ টায় নিখিল মালাকারের নেতৃত্বে সংঘবদ্ধ একদল সন্ত্রাসী দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে অমর মালাকারের ঘরের প্রধান গেইটের তালা ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ করে হামলা ,ভাংচুর ও লুটপাট করে। তারা হামলা করে অমর মালকার, তার গর্ভবতী স্ত্রী পলি মালাকার, বোন স্বপ্না মালাকারকে আহত করে। হামলাকারীরা ঘরের আসবাপত্র ভাংচুর করে, লেপ-তোষক আগুন দিয়ে জ্বালিয়ে দেয়। আহতরা বর্তমানে কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আছেন। হামলার ঘটনায় পলি মালাকার বাদী হয়ে ৮জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামাদের আসামী করে শনিবার বিকেলে কমলগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করে।ইউপি সদস্য সালাম বলেন, আমি একজন ইউপি সদস্য হিসেবে হামলায় আক্রান্ত ভুক্তভোগী অমর মালাকার আমার কাছে আসলে আমি তাদের চিকিৎসা ও আইনের আশ্রয় নিতে বলি। এবিষয়কে কেন্দ্র করে করুণা দাসের ছেলে নান্টু দাস ও অঞ্জন রায় গংরা সামাজিক যোগাযোগ ফেসবুকের মাধ্যমে আমার বিরুদ্বে বিভিন্ন অপপ্রচারে লিপ্ত রয়েছে। সমাজে আমাকে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য এসব মিথ্যা বানোয়াট ষড়যন্ত্র মুলক অপপ্রচার চালাচ্ছে আমি এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।


Comments are closed.

© All rights reserved © 2017 24ghontanews.com
Desing & Developed BY ThemeForest