মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২০, ০৫:০৯ অপরাহ্ন

‘আমাকে কতটুকু ভালোবাসিস? গায়ে আগুন ধরায় প্রমাণ দে তো?’

‘আমাকে কতটুকু ভালোবাসিস? গায়ে আগুন ধরায় প্রমাণ দে তো?’

অন্তঃসত্ত্বা পুতুল রাণীকে ভালোবাসার প্রমাণ দেয়ার জন্য চ্যালেঞ্জ দেন স্বামী প্রদীপ। আর সেই প্রমাণ দিতেই নিজের গায়ে আগুন ধরিয়ে দেন তিনি। কিন্তু ভালোবাসার প্রমাণ দিতে পুতুল গায়ে আগুন ধরালেও আগুন নেভানোর চেষ্টা করেননি স্বামী প্রদীপ। এ আগুনে পুড়েই বুধবার দুপুরে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন পুতুল রাণীর মৃত্যু হয়।

মৃত্যুর আগে চাচা সঞ্জয় কুমারের সঙ্গে শেষ কথায় পুতুল বলেন, প্রদীপ বললো- তুই আমাকে কতটুকু ভালোবাসিস তার প্রমাণ দিতে পারবি? তাহলি নিজের গায় কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরায় দেতো কিরকম পারিস?’

বলতে বলতে কান্নায় ভেঙে পড়েন সঞ্জয়। তিনি এ ঘটনার বিচার দাবি করে বলেন, ওদের মধ্যে প্রায়ই ঝগড়া-মারামারি হতো। গতরাতেও ওদের মধ্যে ঝগড়া হয়। তারপর প্রদীপের ভালোবাসার প্রমাণ দিতে আমার ভাইয়ের মেয়ে এ ঘটনা ঘটায়। অথচ গায়ে আগুন ধরানোর পর প্রদীপ তাকে বাঁচানোর চেষ্টা করেনি। আমি এর বিচার চাই। এ ঘটনায় ঝিকরগাছা থানায় আমি অভিযোগ দিয়েছি।

যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার কাউরিয়া দাসপাড়ায় মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১টায় আগুনে দগ্ধ হয় পুতুল রানী নামে ৪ মাসের অন্তঃসত্ত্বা। এ ঘটনায় তার স্বামী প্রদীপও দগ্ধ হয়েছে। প্রথমে প্রতিবেশীরা তাদের উদ্ধার করে ঝিকরগাছা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। পরে পুলিশ খবর পেয়ে তাদের যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। দগ্ধ পুতুল রাণীর অবস্থা গুরুতর হওয়ায় চিকিৎসকরা তাকে ঢাকায় রেফার করে।

তবে তার স্বজনরা তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে তার মৃত্যু হয়। প্রদীপের বিরুদ্ধে পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগ তোলায় পুলিশ তাকে আটক দেখিয়েছে। প্রদীপ পুলিশ প্রহরায় যশোর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

যশোর সদর হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. আহম্মেদ তারেক শামস চৌধুরী জানান, রাত ৩টার দিকে দগ্ধ দম্পতিকে হাসপাতালে আনা হয়। পুতুলের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় রাতেই তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় রেফার করা হয়। এ ছাড়া আহত প্রদীপের দুই হাত, চোয়াল ও মাথার চুল পুড়ে গেছে। তাকে সার্জারি ওয়ার্ডে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

এদিকে, হাসপাতালে চিকিৎসাধীন প্রদীপ জানান, পারিবারিক বিষয় নিয়ে পুতুলের সাথে ঝগড়া হয়। একপর্যায়ে পুতুল ঘরের বাইরে যেতে চাইলে তিনি বাধা দেন এবং দরজা আটকে শুয়ে পড়েন। পুতুল ক্ষিপ্ত হয়ে পাশের ঘরে গিয়ে নিজের শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন লাগিয়ে দেয়। তিনি আগুন নেভানোর চেষ্টা করেন। এতে তার দুই হাত পুড়ে যায়। পরে প্রতিবেশীরা তাদের উদ্ধার করে হাসপাতাল ভর্তি করে।

২৪ঘন্টা/ ই/ম


Comments are closed.

© All rights reserved © 2017 24ghontanews.com
Desing & Developed BY ThemeForest