বৃহস্পতিবার, ৩০ Jun ২০২২, ০৯:৩৪ পূর্বাহ্ন

রংপুরে সাংবাদিক এজাজ আহমেদর উপর সন্ত্রাসী হামলা,থানায় অভিযোগ

রংপুরে সাংবাদিক এজাজ আহমেদর উপর সন্ত্রাসী হামলা,থানায় অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক:  

রংপুর সদরের ঠিকাদার পাড়া এলাকায় এজাজ আহমেদ নামে এক সাংবাদিকের উপর সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে রক্তাক্ত জখমের ঘটনা ঘটেছে।পরে স্থানীয় লোকজন গুরুত্বর আহত অবস্থায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করান। আহত ওই সাংবাদিক হলেন, জাতীয় দৈনিক সন্ধ্যাবাণী পত্রিকার রংপুর বিভাগীয় প্রধান, ইবিএস নিউজ২৪ ডটকম,র সহ সম্পাদক, আহবায়ক বাংলাদেশ রিপোর্টাস ক্লাব রংপুর এবং আইন সহায়তা কেন্দ্র (আসক) রংপুরের সভাপতি। আহত এজাজ আহমেদ জানান, ১৮ মে বিকালে ঠিকাদার পাড়া থেকে ডেস্কটপ মেরামত করার জন্য রিকশা যোগে যাচ্ছিলাম। কিছু দুর যেতে না যেতেই ষ্টেশন মোড় মেগা সেলুনের সামনে পৌছালে সন্ত্রাসী সুজন শেখ আমাকে হত্যার উদ্দেশ্য আমার মাথা লক্ষ করে লোহার রড দিয়ে আঘাত করে, আমি মাথা সরানোর ফলে আঘাতটি আমার পায়ে লাগে এবং পা ভেঙ্গে যায়।

চলন্ত রিকশায় একের পর এক আঘাতে আমার শরীর বিভিন্ন জায়গা জখম ও সাথে থাকা ডেক্সটপটি ভেঙ্গে যায়। আহত সাংবাদিক রিকশা থেকে নেমে কোনো রকমে হামাগুড়ি দিয়ে নিজ দোকানের দিকে আসার চেষ্টা করলে সুজন শেখের সন্ত্রাসী বাহিনী লাঠিসোঠা, অস্ত্র ও লোহার রড দিয়ে এলোপাথাড়ি তাকে আঘাত করতে থাকে। পরে স্থানীয়রা সন্ত্রাসীদের বাধা দিলে আহত সাংবাদিক এজাজ আহমদ তার নিজ দোকান মের্সাস মায়ের দোয়া আয়রন ষ্টোর এ প্রবেশ করেন। পরে আবারও সুজন শেখ ও তার সন্ত্রাসী বাহিনী আমাকে আঘাত ও দোকান লুটপাট করার উদ্দেশ্য আমার দোকানে আসেন। এসময় আমার ভাই মেরাজুল ইসলাম তাদেরকে বাধা দিলে তারা তাকেও বেধড়ক মারপিঠ ও জখম রক্তাক্ত করেন। আমি ও আমার ভাইয়ের চিৎকারে পাশের লোকজন সেখানে ছুটে আসেন এবং আমাদের দুইভাইকে রক্ষা করেন।

সন্ত্রাসীরা সবার সামনে বলতে থাকে যে যদি আর একটু আগে তোকে পেতাম তাহলে তোকে খুন করে লাশ গুম করে ফেলতাম। এবং অকথ্য ভাষায় গালাগালিজ করতে থাকে। পরে ঘটনাস্থলে থানা পুলিশ অবস্থান করলে কৌশলে সন্ত্রাসীরা সেখান থেকে পালিয়ে যায়।স্থানীয়রা তখন আমাকে গুরুত্বর অবস্থায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করান। এজাজ আহমেদ আরো বলেন এর আগে কোতয়ালী থানায় আমার পিতার দায়ের কৃত মামলা উঠিয়ে নেওয়ার জন্য আসামিরা কয়েকদিন থেকে হুমকি ধামকি দিচ্ছে এবং মামলা তুলে না নেওয়ার কারণে ঐ সন্ত্রাসীরা আমার উপর হামলা করে। এলাকাবাসী জানান, আমরা দুই ভাইয়ের চিৎকার শুনে সেখানে উপস্থিত হই এবং দেখতে পাই কিছু সন্ত্রাসী তাদেরকে লাঠি সোঠা, ধারালো ছোরা ও লোহার রড দিয়ে আঘাত করতে থাকে পরে সবাই মিলে তাদের দুই ভাইকে সন্ত্রাসীদের হাত থেকে উদ্ধার করা হয় । এবং পুলিশকে খবর দিলে তাৎক্ষণিক সন্ত্রাসীরা সেখান থেকে পালিয়ে যায়। তবে সাংবাদিক এজাজ আহমেদ রংপুর মেডিকেলে থাকা অবস্থায় কোতয়ালী থানায় ৪ জনকে আসামী করে এজাহার করলেও এখন পর্যন্ত কোনো আসামি ধরা পড়েনি। সন্ত্রাসীদের খুবই দ্রুত গ্রেফতারের দাবি জানান সাংবাদিক এজাজ আহমেদ।


Comments are closed.

© All rights reserved © 2017 24ghontanews.com
Desing & Developed BY ThemeForest