সোমবার, ১৪ Jun ২০২১, ০৮:৪৭ অপরাহ্ন

রংপুরে ক্রোকারীজ মার্কেটে সন্ত্রাসী হামলায় ব্যবসায়ীকে ছুরিকাঘাত

রংপুরে ক্রোকারীজ মার্কেটে সন্ত্রাসী হামলায় ব্যবসায়ীকে ছুরিকাঘাত

মোঃবেলায়েত হোসেন বাবু, রংপুর প্রতিনিধি :  রংপুর শহরের ব্যস্ততম এলাকা জাহাজ কোম্পানি মোড়ে আজাহার প্লাজা মার্কেটের ক্রোকারীজ ব্যবসায়ী আলমগীর হোসেন। তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ঢুকে একদল সন্ত্রাসী ছুরিকাঘাত ও মারধর করে অফিস কক্ষে ভাংচুর করে নগত টাকা লুটপাট করে নিয়ে ঢ়াওয়ার অভিযোগ উঠেছে। বর্তমানে তিনি রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছেন। ভূক্তভুগী জানান, ১০/১৫ জন যুবক দেশীয় অস্ত্র শস্রে সজ্জিত হয়ে দুপুর আনুমানিক ১ঘটিকা হতে ২ ঘটিকার মধ্যে আমার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে এসে আমার দোকানের অফিস চেম্বারে আমাকে একা পেয়ে জাহাঙ্গীর,বাবু,গোলাম মোস্তফা এলোপাতাড়ি মার-ডাং শুরু করে। ঐ সময় আরাফাত তার হাতে থাকা দেশীয় অস্ত্র দ্বারা হত্যার উদ্দেশ্যে মাথায় আঘাত করলে উক্ত আঘাত মাথার উপরে লেগে মাথা ফেটে গুরুতর রক্তাক্ত ও জখম হয়। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, আরাফাত আমার অফিস রুমের ক্যাশ বাক্স খুলে কোম্পানিতে ডিডি করার ৫,০০,০০০(পাঁচ লক্ষ টাকা) জোরপূর্বক বের করে নেয়। আরাফাতের সঙ্গীয় মোটা স্বাস্থ্যবান প্রকৃতির দেখলেই চিনতে পারব সে আমার মনিটর, সিসি, ক্যামেরা ইত্যাদি ভাংচুর করে। ওতে ৫০,০০০(পঞ্চাশ হাজার) টাকার ক্ষতি হয়। আমি ঐ অবস্থায় বাঁধা দিতে গেলে, সে আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে তার দুই হাত দিয়ে আমার গলা চিপে ধরে শ্বাস রুদ্ধ করার চেষ্টা করে। আমি ঐ সময় প্রাণপণ চেষ্টা করে গলা হতে তার হাত সরিয়ে দিয়ে ডাক চিৎকার শুরু করলে অন্যান্য আসামীরা আমাকে পুনরায় মার ডাং শুরু করে। তখন জাহাঙ্গীর দোকানের ভিতরে ঢুকে দোকানের বিক্রয় ক্যাশ বাক্স হতে জোরপূর্বক ৬৫,০০০(পঁয়ষট্টি হাজার) টাকা বের করে নেয়। আমার বাবা অবস্থা বেগতিক দেখে ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি রতন ও সাংগঠনিক সম্পাদক পাপ্পু মিঞাকে ঘটনার কথা জানালে তারা ঘটনাস্থলে আসতে আসতে আসামীগন তাদের সম্মুখেই বীর দর্পে চলে যায় । আসামীগন এতই দুর্দান্ত প্রকৃতির যে,তারা প্রকাশ্যে দিবালোকে জাহাজ কোঃ মোড়ে আশেপাশে লোকজনের সমাগম সবসময় থাকার সত্বেও ডাচ্ বাংলা ব্যাংক সংলগ্ন আমার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে এসে যেরুপ কার্যকলাপ করেছে তাতে আমি সহ স্থানীয় লোকজন হতবাক ও ভীত সন্ত্রস্থ। আসামীদের কার্যকলাপ ডাকাতি ছাড়া অন্য কোন কিছুই নয়। এইরুপ ঘটনা রংপুর শহরে বীরল এবং জানামতে প্রথম। আসামীগন চলে যাবার সময় প্রকাশ্যে হুমকি দিয়ে বলে যে, তারা যেকোনো কাজ করতে দিধা করে না। এই বিষয়ে কোন ব্যবসায়ী কোন মন্তব্য বা মুখ খুললে তার দোকানেও এই রকম হামলা করা হবে, নিস্তার পাবে না।


Comments are closed.

© All rights reserved © 2017 24ghontanews.com
Desing & Developed BY ThemeForest