মঙ্গলবার, ১৮ মে ২০২১, ০২:০৯ অপরাহ্ন

মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নেয়াই তাদের পেশা

মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নেয়াই তাদের পেশা

বাহারি নামের প্রতিষ্ঠানে গলভরা পদে চাকরির হাতছানি। ফাঁদে পাড়া দিলেই ধরা। সহজ-সরল বেকার তরুণ-তরুণীদের চাকরির প্রস্তাব দিয়ে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নেয়াই তাদের পেশা। দেশের বিভিন্ন স্থানে রীতিমতো শাখা খুলে তারা প্রতারণা করে আসছিল।

সাভার উপজেলার আনন্দপুর এলাকায় প্রজন্ম ফোর্স (প্রা.) লিমিটেড নামে এমনই একটি তথাকথিত প্রতিষ্ঠানের কার্যালয়ে অভিযান চালিয়ে চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব।

অভিযানের সময় ২০ জন চাকরিপ্রার্থী ভুক্তভোগী উদ্ধারসহ ৩৭টি ভর্তি ফরম, ৭টি টাকা জমার রশিদ বই, ৬টি নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি, ১০টি অঙ্গীকারনামা ও ৬টি মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়।

র‌্যাবের হাতে গ্রেপ্তার চক্রের সদস্যরা হলেন শাহারা বানু, মশিউর রহমান, রবিউল ইসলাম রবি ও সাবিনা ইয়াসমিন।

সোমবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে র‍্যাব-৪ এর সহকারী পরিচালক এএসপি মো.জিয়াউর রহমান চৌধুরী এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে সোমবার ভোর রাতে সাভারের আনন্দপুর এলাকায় ‘প্রজন্ম ফোর্স (প্রা.) লিমিটেডের অফিসে অভিযান চালিয়ে চক্রটির চার সদসকে গ্রেপ্তার করা হয়। আমাদের কাছে নির্দিষ্ট অভিযোগ ছিল চক্রটি চাকরি দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে দেশের বিভিন্ন এলাকার চাকরিপ্রার্থী মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। আর এ অভিযোগের ভিত্তিতে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ চক্রের সদস্যরা র‍্যাবকে জানিয়েছে, তারা দীর্ঘদিন ধরে এই প্রতারণা করে আসছে। চক্রটির রাজধানীসহ ঢাকা জেলার একাধিক জায়গায় অফিস ভাড়া নিয়েছে। এসব অফিসে চাকরি প্রত্যাশীদের নানা প্রলোভন দেখিয়ে আকৃষ্ট করে নিয়ে আসা হতো। পরে তাদের কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিয়ে ভূয়া নিয়োগপত্র ধরিয়ে দিত। পরে চাকরি প্রত্যাশীরা এই জালিয়াতি বুঝতে পেরে টাকা ফেরত চাইলে চক্রটির সদস্যরা উল্টো নানা হুমকি দিত।

তিনি আরও বলেন, গ্রেপ্তারকৃতরা আমাদের কাছে তাদের অপরাধ শিকার করেছে। তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

এছাড়া এই চক্রের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট অন্যান্য প্রতারক সদস্যদের গ্রেপ্তার করার জন্য গোয়েন্দা নজরদারি অব্যাহত রয়েছে বলেও জানান জিয়াউর রহমান


Comments are closed.

© All rights reserved © 2017 24ghontanews.com
Desing & Developed BY ThemeForest